বৈশাখী সাজঃ চোখ, ঠোঁট, চুল এবং চুড়ি ও টিপ (পর্ব – ২)

1125

প্রিয় পাঠিকা, আমরা গত পর্বে লিখেছিলাম বৈশাখী সাজে শাড়ি এবং মেকআপ নিয়ে। আজকের পর্বে লিখছি আরও কিছু বিষয় নিয়ে। আশাকরি আপনাদের ভালো লাগবে। আর যারা আগের পর্ব পড়েননি, তাদের অনুরোধ করবো আগের পর্বটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন

চোখের সাজঃ

চোখের সাজ ছাড়া বাঙ্গালী ললনাকে কল্পনাই করা যায় না। আর সেটা যদি হয় পহেলা বৈশাখ, তাহলেতো কথাই নেই। চোখ মানুষের সৌন্দর্য্যের আলাদা একটি আকর্ষণ। ড্রেস বা শাড়ির সঙ্গে মিলিয়ে চোখে স্যাডো দিতে পারেন। স্যাডো দেবার আগে অবশ্যই চোখের নিচে পাউডার লাগিয়ে নিবেন। চোখকে আকর্ষণীয় করতে চোখের পাপড়ীর মাঝখানের অংশে হালকা কালার করতে পারেন। আর কোনার অংশে দিন ডার্ক এবং উপরের অংশে দিন সফট গোল্ড আই স্যাডো। তবে স্যাডো ব্যবহারের সময় অবশ্যই চোখের আকৃতির দিকে খেয়াল রাখতে হবে, স্যাডো যেন চোখের পুরো অংশে বেন্ড হয়ে যায়। তারপর আইলাইনার এবং এরপর দিবেন মাশকারা। চাইলে চোখের নিচে একটু কাজল দিতে পারেন। এরপর নিচের পাউডারটি আস্তে করে ভালো করে মুছে ফেলুন। এই সাজ আপনার চোখকে আকর্ষণীয় করে তুলবে।

ঠোঁটের সাজঃ

নিজেকে আকর্ষণীয় করে তুলতে ঠোঁটের সাজও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে। আপনার বৈশাখী পোশাকের সঙ্গে মিলিয়ে লিপিস্টিকের ব্যবহার করতে পারেন। এতে লাল বা অন্য কোন রং এর লিপিষ্টিক ব্যবহার করতে পারেন। তবে বৈশাখীতে লাল এর ব্যবহার বেশীই হয়। ঠোঁটের আকৃতি অনুযায়ী লিপলাইনার দিয়ে ঠোঁট ভালোকরে একেঁ নিতে হবে। এরপর ভালোভাবে লিপিষ্টিক লাগাতে হবে। লিপিষ্টিককে বেশী সময় স্থায়ী করতে চাইলে এর উপর আপনি সামান্য পাউডার লাগিয়ে নিতে পারেন। তবে এক্ষেত্রে অবশ্যই ভালোভাবে ঠোঁট বেন্ট করে নিতে হবে।

চুলের সাজঃ

চুল বাঙ্গালী ললনার অহঙ্কার। বৈশাখীতে চুলের সাজ অত্যান্ত গুরুত্বপূর্ণ। যদি চুল স্ট্রেইট হয়, তাহলে চুলে খোপা বা বেরুনী (বেণী) করে নিতে পারেন। তবে সারাদিনের জন্য খোপা করাটাই বুব্ধিমতির কাজ। এছাড়া আপনি বিভিন্ন সাজে আপনার চুলকে সাজাতে পারেন। তবে অবশ্যই চুলে ফুল থাকা চাই।  এক্ষেত্রে গোলাপ, গাদা, গাজরা, বেলি কিংবা জুই ফুলের মালা লাগাতে পারেন।

টিপঃ

একটি টিপ ছাড়া পুরো সাজটাই যেন অসম্পূর্ণ থেকে যায়। যেহেতু বৈশাখ, আপনি আপনার সৌন্দর্য্যকে বাড়াবার জন্য কপালে একটু সুন্দর লাল টিপ অথবা আপনার পোষাকের সঙ্গে মানানসই একটি টিপ পরতে পারেন।

চুড়িঃ

বাঙ্গালী ললনাকে চুড়ি ছাড়া কল্পনাই করা যায় না। যেহেতু বৈশাখ, সেহেতু আপনি আপনার দুহাতে কাঁচের রেশমী চুড়ি পরতে পারেন। অথবা মাটির চুরি ও গহনা পরে নিজেকে সাজিয়ে নিতে পারেন।

আজকে এ পর্যন্তই, আশাকরি আমাদের দেওয়া টিপস গুলি আপনাকে বৈশাখে সাজতে সাহায্য করবে। আর এ বিষয়ে আরও কোন টিপস বা আর কোন কিছু জানতে চাইলে মন্তব্যের ঘরে আমাদের জানাতে পারেন।

রূপচর্চা, দেহের বিভিন্ন অঙ্গের যত্ন, রান্না, স্বাস্থ্যটিপস সহ মেয়েদের বিভিন্ন বিষয়ে জানতে আমাদের সাথেই থাকুন। সম্পূর্ণার ফেসবুক ফ্যান পেইজে লাইক দিয়ে নিয়মিত আমাদের পোষ্ট পেতে পারেন। আর আপনার কোন প্রশ্ন থাকলে কিংবা আরও আলোচনা করতে চাইলে জয়েন করতে পারেন আমাদের ফেসবুক গ্রুপে

আপনার মন্তব্য

টি মন্তব্য