মজাদার কেশরি কুলফি এর নাম নিশ্চই শুনেছেন। অন্তত কুলফির নাম শুনেই থাকবেন। গরমের মধ্যে আইসক্রিমের যেন কোন তুলনাই হয় না। আর আইসক্রিম যদি হয় কুলফি, তাহলেতো কথাই নেই। আর তাই আমরা আজকের সম্পূর্ণায় হাজির হয়েছি মজাদার কেশরি কুলফি এর রেসিপি নিয়ে। এখন আপনি সহজেই ঘরে বসে মজাদার কেশরি কুলফি তৈরী করে মন জয় করতে পারবেন আপনার পরিবারের সবার, সাথে সাথে খাদ্যের মানও থাকবে অটুট, কেননা এটি যে ঘরেই তৈরী। তাহলে আসুন, দেখে নেই মজাদার কেশরি কুলফি তৈরীতে কি কি লাগবে, এবং কিভাবে তৈরী করতে হবে।

প্রয়োজনীয় উপকরনঃ

১. ফুল ক্রিম মিল্ক ৫ লিটার

২. জাফরন ২ চিমটি

৩. চিনি ৩০০ গ্রাম

৪. এলাচ গুড়া হাফ চা-চামচ

৫. পেস্তা বাদাম বাটা ২ টেবিল-চামচ

৬. কর্ণফ্লাওয়ার ৩০০ গ্রাম

৭. ফুড কালার হাফ চা-চামচ

৮. গোলাপজল ১ চা-চামচ

৯. পানি ১.২৫ লিটার

প্রস্তুত প্রণালীঃ

প্রথমে ২ টেবিল চামচ দুধের মধ্যে ২ চিমটি জাফরন ভিজিয়ে রাখুন। বাকি দুধ আলাদা একটি বড় কড়াইতে নিয়ে মাঝারি আঁচে জ্বাল দিতে থাকুন। জ্বাল দিতে দিতে দুধের পরিমান অর্ধেক হয় এলে এর ভেতর চিনি দিয়ে নাড়তে থাকুন। চিনি গলে এলে এর মধ্যে ভেজান জাফরন, এলাচ গুড়া ও বাদাম দিয়ে ক্রমাগত নাড়াতে থাকুন। ১৫ মিনিট পর নামিয়ে ঠান্ডা করে নিন। এবার এই মিশ্রণটি ৬ ঘন্টার জন্য ফ্রিজের ডিপে রেখে দিন। তবে মাঝে মাঝে নেড়ে দিবেন।

এবার অন্য একটি পাত্রে ১.২৫ লিটার পানি নিয়ে তা ফুটিয়ে তার মধ্যে কর্ণফ্লাওয়ার ঢেলে দিন। কিছুক্ষন পর ফুড কালার দিয়ে ক্রমাগত নাড়তে থাকুন। এতে এই মিশ্রণটি কিছুটা জেলির মত হয়ে যাবে। জেলির মত হয়ে এলে নামিয়ে বরফ গুড়া মিসিয়ে সার্ভিং ডিশের একপাশে রেখে দিন। এবার ফ্রিজে রাখা আইসক্রিম বের করে মন মত স্লাইস করে কেটে নিন। উপরে গোলাপজল ছিটিয়ে নিন। ব্যাস, তৈরী হয়ে গেলো আপনার নিজের মজাদার কেশরি কুলফি। এবার ঠান্ডা ঠান্ডা পরিবেশন করুন, বেশি সময় অপেক্ষা করলে কিন্তু গলে যাবে। যদিও গলে যাওয়া কুলফির স্বাদ ও থাকবে অটুট, তবে ঠান্ডাটাই ভালো,  না হলে আইসক্রিম/কুলফি হবে কি করে?

রূপচর্চা, দেহের বিভিন্ন অঙ্গের যত্ন, রান্না, স্বাস্থ্যটিপস সহ মেয়েদের বিভিন্ন বিষয়ে জানতে আমাদের সাথেই থাকুন। সম্পূর্ণার ফেসবুক ফ্যান পেইজে লাইক দিয়ে নিয়মিত আমাদের পোষ্ট পেতে পারেন। আর আপনার কোন প্রশ্ন থাকলে কিংবা আরও আলোচনা করতে চাইলে জয়েন করতে পারেন আমাদের ফেসবুক গ্রুপে

আপনার মন্তব্য

টি মন্তব্য